হাতে লেখার দিন শেষ মুখ দিয়ে বললেই সব লেখা হয়ে যাবে ‌!

 বর্তমান সময়ে কিন্তুএখন অনেকের লেখালেখির পেশার সাথে জড়িত কিংবা   বিভিন্ন লেখক সাংবাদিক বন্ধুরা রয়েছেন যারা কিন্তু বিভিন্ন নিউজ এবং বিভিন্ন   তথ্য শেয়ার করে থাকেন বিভিন্ন নিউজ পেপার পত্রিকায়


হাতে লেখার দিন শেষ মুখ দিয়ে বললেই সব লেখা হয়ে যাবে _!
Photo By Unsplash 


তা ছাড়া ও কিন্তু অনেক ব্লগার রয়েছে যারা প্রতিনিয়ত তাদের ওয়েবসাইটে বিভিন্ন বিষয় নিয়ে লেখালেখি করে যেমন টেকনোলজি, আজ তো বেশি অফ নিওস রিলেটেড অথবা কোন বইয়ের রিভিউ মুভি রিভিউ, অথবা টিউটরিয়াল কিংবা বিভিন্ন কোর্স নিয়ে রিভিউ লিখে থাকেন আর তাদের কিন্তু এই বিষয়গুলো লেখার জন্য অনেক সময় দরকার হয়ে থাকে  

{tocify} $title={Table of Contents}

আরো অনেকের দেখা যায় যে লেখার স্পিড স্লো হওয়ার কারণে তাদের একটা ৫০০ ওয়ার্ডের আর্টিকেল লিখতে প্রচুর পরিমানে সময় দরকার হয়ে থাকে আর যেটা কিন্তু তাদের জন্য খুবই একটা কষ্টকর বিষয় হয়ে দাঁড়ায় আর আজকে আমরা এমন একটি অ্যাপ সম্পর্কে আলোচনা করবো যে এই অ্যাপস এর মাধ্যমে যারা শুধুমাত্র মুখে বলবেন আর লেখা অটোমেটিক ভাবে হয়ে যাবে  

তাছাড়া  ভয়েস টাইপিং করবেন আপনারা মুখ দিয়ে যা বলবেন সেই লেখা গুলো আপনাদের অটোমেটিকভাবে হয়ে যাবে যে, হাত দিয়ে কোন লেখা টাইপ করে লিখতে হবে না মুখ দিয়ে বললেই সব হয়ে যাবে লেখাগুলো শোন এইবারে সম্পর্কে বিস্তারিত সকল তথ্য জেনে নিই আর কথা না বাড়িয়ে - 


লেখালেখি কোন ধরনের মানুষেরা বেশি করে? 


লেখালেখি কিন্তু বিভিন্ন ধরনের মানুষেরা করে থাকে আর তার ভিতরে সবথেকে বেশি পরিমাণে লেখালেখি যারা করে তারা কিন্তু হলো সাংবাদিক এবং বিভিন্ন লেখক লেখিকা যারা রয়েছে তারা 

সাংবাদিকদের কিন্তু প্রচুর পরিমাণে নিউজ লিখতে হয় এবং নিউজ কালেক্ট করে সেগুলো লেখায় পরিণত করে সাধারন মানুষকে জানানোর লাগে এবং বর্তিকা তে লেখা লাগে এছাড়াও বিভিন্ন অনলাইন নিউজ পোর্টাল রয়েছে সেগুলোতে তাদেরকে বিভিন্ন বিষয়ে আর্টিকেলে প্রকাশ করতে হয় অর্থাৎ নিউজ রিলেটেড আর্টিকেল পড়তে হয় কোন খানে কি ঘটেছে কোন জায়গায় কিসের খবর রয়েছে কোথায় দুর্ঘটনা হয়েছে এই বিষয়গুলো সম্পর্কে কিন্তু তাদেরকে নিউজ পত্রিকায় লেখালেখি করতে হয় আর তার জন্য কিন্তু তাদেরকে প্রচুর পরিমানে সময় ব্যয় করতে হয় লেখার জন্য 

আর আপনারা যারা ব্লগিং করেন এই  পেশার সাথে জড়িত  হয়েছেন তাঁদের কেউ কিন্তু প্রচুর পরিমাণে লেখালেখির কাজ করতে হয় কারণ ওয়েবসাইট এর ভিতরে কিন্তু বিভিন্ন ধরনের তথ্য দিতে হয় নিত্যনতুন  কনটেন্ট পাবলিশ করতে হয় এই কনটেন্ট গুলো লেখার জন্য কিন্তু প্রচুর পরিমানে সময় লাগে এবং প্রচুর পরিমাণে রিচার্জ করতে হয়  

লেখার জন্য যে সময় লাগে তা থেকে কিন্তু বেশি সময় লাগে রিচার্জ করার জন্য একটা ফুলফিল এবং তথ্যবহুল সম্পন্ন আর্টিকেল লিখতে কিন্তু প্রচুর পরিমানে সময় দিতে হয় তথ্যগুলো রিচার্জ করা শেষ হয়ে গেলে সেই বিষয় সম্পর্কে একটা ভালোভাবে ধারণা পাওয়ার পরে কিন্তু লেখার জন্য একটা সময় দেওয়া লাগে তিন থেকে চার ঘণ্টা লেগে যায় লিখতে লিখতেই পারে 1000 word . 

যাদের হাতের লেখা অনেক ফাস্ট অর্থাৎ কিবোর্ড টাইপিং অনেক ফাস্ট পারে তারা কিন্তু একটু দ্রুত লিখতে পারে কিন্তু আপনারা জানলে অবাক হবেন যে এখন বর্তমানে কিন্তু আপনারা মুখ দিয়ে বলবেন সেটা লেখা হয়ে যাবে এমন একটা অ্যাপস আছে যার মাধ্যমে কিন্তু আপনার মুখে বললে কথাগুলো  অটোমেটিক ভাবে টেক্সট কনভার্ট হয়ে যাবে

আশাকরি বুঝতে পারতেছেন যে,


আমি কি বলতে চাচ্ছি , সিটি ব্যবহার করলে কিন্তু আপনারা আপনারা মুখ দিয়ে যে বিষয়গুলো বলবেন অর্থাৎ যে সম্পর্কে আপনারা আপনাদের আর্টিকেল অথবা নিউজ কিংবা যে কোন বিষয়ে লিখেন না কেন সেই বিষয়গুলো যদি আপনারা মুখ দিয়ে বলতে থাকেন কেন্দ্র সেই লেখাগুলো অটোমেটিক ভাবে আপনাদের টেক্সট পরিণত হবে আর যেগুলো কিন্তু আপনারা খুব সহজেই আপনাদের ওয়েবসাইট কিংবা যেখানে প্রকাশ  করার ইচ্ছা সেখানে প্রকাশ করতে পারবেন   আপনারা এই লেখাগুলো যেকোনো জায়গায় পাবলিশ করতে পারবেন না যে কারো কাছে শেয়ার করতে পারবেন  


অ্যাপসটি কোথায় পাবেন বা কিভাবে install  করবেন ? 


আপনাদেরকে এতক্ষণ যে অ্যাপসটি সম্পর্কে এত কিছু বললাম সেই অ্যাপটির নাম হল জি বোর্ড নারা এই অ্যাপসটি কিন্তু গুগল প্লে স্টোরে সার্চ করলে খুব সহজেই পেয়ে যাবেন সবার প্রথমে পেয়ে যাবেন আর এই অ্যাপসটি কিন্তু এক বিলিয়ন মানুষের থেকেও বেশী মানুষ নামিয়েছে ।  


বুঝতে পারছেন এই অ্যাপসটির জনপ্রিয়তা কত এবং এই অ্যাপসটি কত পরিমাণে মানুষের ব্যবহার করতেছে আর আপনি যদি লেখালেখির পেশার সাথে জড়িত হয়ে থাকেন আপনার যদি লিখতে অসুবিধা হয় অর্থাৎ লিখতে যদি অনেক সময় লাগে তাহলে কিন্তু এই অ্যাপসটি আপনাদের জন্য দারুণ কার্যকর বলে আশা করা যায়। 


আবার অনেক মানুষ আছে যারা লেখালেখি করতে পছন্দ করে কিন্তু লিখতে গেলে তাদের অনেক সময় লাগে এজন্য তারা লেখালেখি করে না বা লিখতে গেলে হাত ব্যথা করে কিংবা লিখতে গেলে আলসেমি লাগে তাদের জন্য কিন্তু এই অ্যাপসটি সেরা একটি অ্যাপস হতে পারে এই অ্যাপসটির মাধ্যমে শুধুমাত্র মুখে বললেই লেখা গুলো যে কথাগুলো বলবে সেইগুলোই কিন্তু টেক্সট কনভার্ট হয়ে যাবে আর তার পরে কিন্তু আপনারা সেই লেখাগুলো যে কারো কাছে শেয়ার করতে পারবেন। 


Read More - ইনস্টাগ্রাম মার্কেটিং কিকেন কিভাবে করতে হয়জেনে নিন 

আপনাদের ওয়েবসাইটে কিংবা নিউজ পোর্টাল ওয়েবসাইট অথবা আপনাদের পেপারে ছাপাতে চান তাহলে সেগুলো কিন্তু আপনারা করতে পারবেন খুব সহজে কোন সমস্যা নেই

 

আমাদের শেষ কথা 

আজকে আমরা আমাদের এই আর্টিকেলের সকল কিছু জানতে পারলাম যে আমরা কিভাবে খুব সহজেই আমাদের মুখ দিয়ে বলে সেই কথাগুলো টেক্সট কনভার্ট করব শুধুমাত্র একটি অ্যাপস এর মাধ্যমে এবং সেই অ্যাপসটিকিভাবে আমরা প্লে স্টোর থেকে install করব কি লিখে সার্চ করব এই বিষয়গুলো সম্পর্কে জানতে পারলাম না এবং এই অ্যাপসটি কারা ব্যবহার করবে এবং এই অ্যাপসটি ব্যবহার করলে সুবিধা পাবেন এই বিষয়গুলো সম্পর্কে কিন্তু আজকের আর্টিকেল এর বিস্তারিত তথ্য জানতে পারলেন


Admin

আমি একজন স্টুডেন্ট , বর্তমানে একাউন্টিং বিষয় নিয়ে অনার্স করতেছি, আর তার সাথে সাথে লেখালেখি করি। ফ্রী সময় যখন হয় তখন আমি যে বিষয়গুলো জানি সেই বিষয়গুলো সম্পর্কে আপনাদেরকে একটু আইডিয়া দেওয়ার চেষ্টা করি এই ওয়েবসাইটের মাধ্যমে।

Post a Comment

Previous Post Next Post