২০২২ সালে মহিলাদের জন্য ১০টি লাভজনক ব্যবসার আইডিয়া - ১০টি সেরা ব্যবসা আইডিয়া কি ?

 ২০২২ সালে মহিলাদের জন্য ১০টি লাভজনক ব্যবসার আইডিয়া - ১০টি সেরা ব্যবসা আইডিয়া কি ?

২০২২ সালে মহিলাদের জন্য ১০টি লাভজনক ব্যবসার আইডিয়া



{tocify} $title={Table of Contents}

কিভাবে একটি সঠিক ব্যবসা শুরু করতে পারবেন 

বর্তমান সময়ে এখন অনেক  মহিলারা  রয়েছেন যারা ব্যবসা করার জন্য আগ্রহীতথ্যপ্রযুক্তির যুগে  এখন কিন্তু অনেক  মহিলারা ব্যবসা করার জন্য অনেক  চেষ্টা করেনএবং করার অনেক ইচ্ছা থাকেকিন্তু  কিভাবে শুরু করবেন কোথা থেকে শুরু করবেন কি ব্যবসা করবেন এই সম্পর্কে তাদের কোনো জ্ঞান বা ধারণা থাকে না   

আর তখন কিন্তু তাদের সমস্যার সম্মুখীন হতে হয়কিন্তু আজকের এই আর্টিকেল পড়ার পরে যেকোনো একটি ব্যবসা শুরু করতে পারবেন খুব সহজেই   আমাদের আজকের আর্টিকেলে  আপনাদের জন্য  50 টি ব্যবসার আইডিয়া সম্পর্কে আলোচনা করব যে ব্যবসা গুলো আপনারা শুধু করলে বেশ ভালো একটা  মুনাফা লাভ করতে পারবেন    

আর এর থেকে বড় কথা হল যেএই ব্যবসা গুলোর চাহিদা কিন্তু প্রচুর পরিমাণে রয়েছে মার্কেটে এবং এই ব্যবসা করে কিন্তু অনেকে সফল হয়েছেন তাই আপনারাই ব্যবসা করলে অবশ্যই সফল হবেন যদি আপনারা ঠিকভাবে এই ব্যবসায় পরিচালনা করতে পারেনি আর ভবিষ্যতেও এই ব্যবসা গুলোর চাহিদা প্রচুর পরিমাণে বাড়বে  

তাহলে আসুন জেনে  নেই  আজকে মহিলাদের জন্য  লাভজনক ৫০টি ব্যবসার আইডিয়া

1. Bakery Business 

আপনারা কি আপনাদের বাসায় বসে ভালো ভালো  বিস্কিটকেক , এই সমস্ত ধরনের খাবার গুলো বানাতে পারেন ? আর সেটা দেখে আপনাদের পরিবারের সবাই অবাক ,  

যে আপনি কিভাবে এত ভালো ভালো খাবার বানাতে পারেন 

 আর আপনারা যদি বাসায় বসে ভালো বিস্কুট কেক মজাদার যে সকল খাবার রয়েছে সে সকল খাবার গুলো বানাতে পারেন তাহলে কিন্তু আপনারা আপনাদের এই শখের একটা জিনিস থেকেও ব্যবসা শুরু করতে পারেন। আপনি আপনার খাবার গুলো বিক্রি করে কিন্তু বেশ ভালো পরিমাণে একটা লাভ করতে পারবেন   

আপনার খাবারগুলো  বিভিন্ন দোকানে দিতে পারেন অর্থাৎ আপনারা বিস্কিট কেক এগুলো বানিয়ে দোকানে দিতে পারেন ফাস্টফুডের যে সকল দোকান রয়েছে সে সকল দোকানে আপনাদের  কেক গুলোকে  বানিয়ে পাঠিয়ে দিতে পারেন    

এরপরে আপনারা চাইলে অনলাইনের মাধ্যমে আপনাদেরকে  কেক গুলো বানিয়ে তারপরে সেগুলোর ছবি  আপলোড করে দিতে পারেন   

ফেসবুক অথবা  ফেসবুক গ্রুপের মাধ্যমে কিন্তু আপনারা এই ব্যবসাটা শুরু করতে পারেন   আপনারা প্রথমে কিছু স্যাম্পল হিসাবে আপনাদের ফেসবুক গ্রুপ পেজ বা অন্য সকল সোশ্যাল মিডিয়ার মাধ্যমে যেখান থেকে খুশি সেখান থেকে কিন্তু  আপনারা এই ব্যবসা শুরু করতে পারবেন   

আপনাদেরকে সবার আগে যে কাজটি করতে হবে সেটা হল আপনারা যেই খাবারগুলো বানাতে পারেন সেই খাবারগুলো ছবি অনলাইনে আপনারা  দিয়ে দিবেনমানে আপলোড করে দিবেন   

তারপরে কোন ব্যক্তি যদি অর্ডার করে আপনাদের খাবার তাহলে আপনারা সেই খাবারগুলো কোন একটা ডেলিভারি   কোম্পানির সাথে কথা বলে নির্দিষ্ট একটা চুক্তির বিনিময় তাদের মাধ্যমে আপনারা খাবারগুলো ডেলিভারি করে দিতে পারবেন  

বর্তমানে বাংলাদেশে এখন অনেক ডেলিভারি কোম্পানি রয়েছে যে কোম্পানিগুলো খাবার ডেলিভারি করে থাকেতাদেরকে নির্দিষ্ট পরিমাণে একটা অর্থ দিয়ে  আপনারা কিন্তু আপনাদের খাবারগুলো আপনাদের কাস্টমারদের কাছে সঠিক সময় পৌছে দিতে পারবেন আর এভাবেই কিন্তু আপনারা বাসায় বসে বিভিন্ন ধরনের খাবার বানিয়ে সেগুলো বিক্রি করে প্রচুর পরিমাণে মুনাফা অর্জন করতে পারবেন   আশা করি বুঝতে পেরেছেন কিভাবে বেকারির ব্যবসা করি আপনারা সফল হতে পারবেন এবং মুনাফা অর্জন করতে পারবেন   

2.  Crafts 

আমাদের বাংলাদেশের এখনো অনেক  শিক্ষিত নারী জাতি যারা বেকারপরিবার এবং  বিভিন্ন কাজের সময় ব্যবহার জন্য বাহিরে গিয়ে কোনো উদ্যোগ ব্যবসা ব্যবসা করা সম্ভব হয়ে ওঠেনা   অনেকেই আমাকে প্রশ্ন করে থাকেন যে ," ভাইয়া, ঘরে বসেই  কি কি ব্যবসা করা যায়? আসলে সত্যি কথা বলতে ঘরে বসে কোনো ব্যবসায়ী করতে পারবেন না আপনারা   

ঘরে বসে না  থেকে আপনাদেরকে ঘরের ভিতরে কাজ করে ব্যবসা শুরু করে দিতে হবে যারা ঘরে বসে ব্যবসা শুরু করতে চান করে বসে বিভিন্ন কাজ করে ব্যবসা শুরু করার কথা চিন্তা ভাবনা করতেছেন তাদের  জন্য বলতেছি।   

আপনারা যদি পেপার দিয়ে বিভিন্ন জিনিসপত্র বানাতে পারেন অর্থাৎ কাগজ দিয়ে যদি বিভিন্ন ডিজাইনের বিভিন্ন ধরনের জিনিসপত্র  খুব সহজে বানিয়ে ফেলতে পারেন তাহলে এই কারুশিল্প থেকে কিন্তু আপনারা বেশ ভালো পরিমাণে একটা  মুনাফা অর্জন করতে পারবেন   

আর আপনাদের ভিতরে কারো যদি এই শখটা থেকে থাকেঅর্থাৎ আপনাদের ভিতরে কারো যদি এই প্রতিভা দেখে তাকে যে আপনাকে কাগজ দিয়ে বিভিন্ন ধরনের জিনিস পত্র খুব সহজেই বানিয়ে ফেলতে পারেন এবং সেটার দেখলে চোখ জুড়িয়ে যায় রকমের জিনিসপত্র বানাতে পারেন তাহলে কিন্তু আপনারা কাগজ দিয়ে বিভিন্ন জিনিসপত্র বানিয়ে সেগুলো কে বিক্রি করে বেশ ভালো পরিমাণে একটা মুনাফা অর্জন করতে পারবেন আর এর জন্য কিন্তু আপনার থেকে ঘরের বাইরে যেতে হবে না এই কাজগুলোকে  কিন্তু  আপনারা ঘরে বসেই করতে পারবেন   

এখন প্রশ্ন হল যে আপনারা এই কাগজপত্র দিয়ে  যে জিনিস গুলো বানাবেন সেগুলো বিক্রি করবেন কিভাবে এবং এগুলো কারা কিনবে

এই প্রশ্নটা অনেকের মনে আসতে পারে আর এর উত্তর আমি দিয়ে দিচ্ছি আপনাদের বোঝার সুবিধার্থে , আপনারা কাগজ দিয়ে বিভিন্ন জিনিস পত্র বানিয়ে সেগুলো নিয়ে ভিডিও বানাতে পারেন অথবা যে জিনিসপত্র গুলো বানাবেন সেই জিনিসপত্র গুলোর ছবি আপনারা ফেসবুকের মাধ্যমে বিভিন্ন গ্রুপ অথবা বিভিন্ন সোশ্যাল মিডিয়ার মাধ্যমে শেয়ার করতে পারেন এবং আপনার একটা ফেসবুক পেজ খুলতে পারেন সেখানে আপনারা আপনাদের বানানো সকল ধরনের কাগজপত্র দিয়ে যে সমস্ত জিনিস বানাবেন সেই সকল ডিজাইনগুলো সেখানে আপলোড করতে থাকবেন  

আর এই সমস্ত জিনিসপত্র যারা কিনতে আগ্রহী  যারা এই সমস্ত জিনিস পত্রগুলো পছন্দ করে তাঁরা কিন্তু আপনার কাছ থেকে এই জিনিসপত্রগুলো কেনার জন্য আপনাদের সাথে যোগাযোগ করবে এবংনির্দিষ্ট একটা টাকার বিনিময়ে কিন্তু আপনারা এই জিনিসগুলো বিক্রি করতে পারবেন খুব সহজেই।  

আর এই ব্যবসা করে কিন্তু অনেকেই সফল হয়েছেন তাই আপনি যদি এই ব্যবসা করেন তাহলে অবশ্যই সফল হবেন আর এই ব্যবসায় কম্পেটিশন অনেক কম রয়েছে তাই আপনারা এই ব্যবসা করলে অবশ্যই সফল হতে পারবেন    

কাগজপত্র দিয়ে বিভিন্ন জিনিসপত্র  বানাতে পারলে কিন্তু সেগুলো বিক্রি করে প্রচুর পরিমাণে মুনাফা অর্জন করা সম্ভব   আর তাই আপনারা যদি কাগজপত্র দিয়ে বিভিন্ন জিনিসপত্র বানাতে দক্ষ  থাকেন তাহলে কিন্তু এই ব্যবসা শুরু করতে পারেন 

3. Photography 

আপনাদের  প্রিয় শখ যদি ছবি তোলা হয়ে থাকে তাহলে কিন্তু  আপনারা আপনাদের তোলা ছবিগুলো বিক্রি করেও মুনাফা অর্জন করতে পারবেন  এখন বর্তমানঅনলাইনে অনেক ওয়েবসাইট রয়েছে যেখানে ছবি কিনে নিয়ে থাকে   

সেসকল ওয়েবসাইটগুলোতে আপনারা একাউন্ট করে আপনাদের তোলা ছবি গুলো বিক্রি করে কিন্তু বেশ ভালো পরিমাণে একটা মুনাফা অর্জন করতে পারবেন   

একটা ছবি যদি আপনারা দুই ডলার করে   বিক্রি করেন তাহলে দেখা যাবে যে আপনারা যদি একশ ছবি বিক্রি করতে পারেন অর্থাৎ আপনাদের তোলা ছবিগুলো যদি ১০০০জন  মানুষেরা  কিনে  তাহলে দেখা যাবে যে আপনাদের খুব সহজেই  ২০০০ ডলার রোজগার হয়ে যাবে    

আর এভাবেই আপনারা আপনাদের তোলা ছবি যত জন  মানুষেরা কিনবে ততই আপনাদের লাভ হতে থাকবে   তাই আপনারা যত ভালো ছবি তুলে  গ্রাহকদেরকে উপহার দিতে পারবেন ততোই কিন্তু আপনাদের লাভ আর আপনারা চাইলে কিন্তু এই কাজটা করে বেশ ভালো পরিমাণে একটা রোজগার করতে পারবেন  

3. Virtual Assistant 

আপনারা চাইলে কিন্তু একজন ভার্চুয়াল অ্যাসিস্ট্যান্ট হিসেবে কাজ করতে পারেন বিভিন্ন কোম্পানিতে , বাহিরের দেশে বিভিন্ন কোম্পানি রয়েছে যে সকল কোম্পানির ম্যানেজার দরকার হয়ে থাকে কিন্তু তারা যদি সেই সকল দেশ থেকে অর্থাৎ তারা যদি নিজেদের দেশ থেকে একজন কর্মচারী নিয়োগ দেবে তাদের  এসিস্টেন্ট হিসেবে রাখি তাহলে তাদেরকে প্রচুর পরিমাণে বেতন দেওয়া লাগে।  

কিন্তু তারা যদি একজন ভার্চুয়াল অ্যাসিস্ট্যান্ট নিয়ে নেয়  তাহলে দেখা যায় যে অনেক কম থাকার জন্য কিন্তু বিদেশি কোম্পানি এবং অনেক কোম্পানি আছে যেগুলো ভার্চুয়াল অ্যাসিস্ট্যান্ট নিয়োগ দিয়ে থাকে   আর এই সেক্টরে কিন্তু প্রচুর পরিমাণে কাজ শুরু হয়েছে আর ভবিষ্যতেও কিন্তু এর চাহিদা প্রচুর পরিমাণে বাড়বে তাই আপনারা চাইলে কিন্তু এই কাজটি করতে পারেন    

এখানে আপনাদেরকে কি কাজ করা লাগবে ? 

এখানে আপনাদেরকে সেই সকল কোম্পানির অর্থাৎ যে সকল কোম্পানি থেকে আপনার কাজ পাবেন তাদের সোশ্যাল মিডিয়া যে সকল অ্যাকাউন্টগুলো রয়েছে যেমন ফেসবুক ইউটিউব টুইটার  লিঙ্কডইন  ইমেইল  এই সমস্ত সোশ্যাল মিডিয়া একাউন্টগুলো রয়েছে সে সমস্ত  একাউন্ট গুলোকে  আপনাদেরকে ম্যানেজ করা লাগবে   

এই ব্যবসায় লাভ কি রকমের 

আর এই কাজ করার জন্য আপনারা কিন্তু প্রতি ঘন্টার জন্য 10 ডলার থেকে 20 ডলার পর্যন্ত বা তার থেকেও বেশি চার্জ নিতে পারবেন   আর  আর তাই আপনারা যদি এই কাজ করার জন্য আগ্রহী হয়ে থাকেন তাহলে কিন্তু এই কাজ শুরু করতে পারেন   

4. Graphic Design Service 

আপনারা যদি গ্রাফিক ডিজাইন এর কাজ জানেন  অর্থাৎ আপনারা যদি বিভিন্ন  ছবি  অ্যানিমেশন বুক কভার ডিজাইনবিজনেস কার্ড , লোগো ডিজাইন ব্যানার ডিজাইন , বিভিন্ন বিল্ডিং এর ডিজাইন। 

অর্থাৎ এক কথায় বলতে গেলে গ্রাফিক ডিজাইন এর ভেতরে যে সমস্ত কাজ গুলো রয়েছে সেগুলো যদি আপনারা করতে পারেন অর্থাৎ এই কাজে যদি আপনারা অভিজ্ঞ হয়ে থাকেন তাহলে কিন্তু গ্রাফিক ডিজাইন সার্ভিস  দেওয়ার মাধ্যমে বেশ ভালো পরিমাণে মুনাফা অর্জন করতে পারবেন প্রতিমাসে    

5. Candle Making  

আপনারা যদি মোমবাতি বানাতে পারেনবিভিন্ন ডিজাইনের মোমবাতি বানানোর প্রতিভা আপনাদের ভিতরে থাকে তাহলে কিন্তু আপনারা এই মোমবাতি বানানো বেশ ভালো পরিমাণে একটা মুনাফা অর্জন করতে পারবেন  

আপনারা যদি অন্য সকল  কম্পিটিটর  থেকে ভালো ডিজাইন বানাতে পারেন অর্থাৎ ইউনিক কিছু বানাতে পারেন তাহলে কিন্তু আপনাদের মোমবাতিগুলো অনেক মানুষেরা কেনার জন্য আপনার কাছে আসবে আর তাই আপনারা যদি মোমবাতি বানানোর কাজ পারেন তাহলে কিন্তু এই ব্যবসা করে বেশ ভালো পরিমাণে টাকা মুনাফা অর্জন করতে পারবেন বলে আশা করা যায়   

6. Online Survey  

আপনারা যদি ইংলিশে ভালো হন এবং বিভিন্ন প্রশ্নের উত্তর দিতে পারেন  তাহলে কিন্তু আপনারা অনলাইনের মাধ্যমে সার্ভে করে বেশ ভালো পরিমাণে একটা মুনাফা অর্জন করতে পারবেন   আর এই কাজটা কিন্তু আপনার ঘরে বসেই আপনাদের কম্পিউটার বা ল্যাপটপ থেকে করতে পারবেন   

Read More - ইনস্টাগ্রাম মার্কেটিং কিকেন কিভাবে করতে হয়জেনে নিন

আর আপনারা যদি অনলাইন সার্ভের মাধ্যমে কাজ শুরু করেন তাহলে কিন্তু বেশ ভালো পরিমাণে একটা মনে হয় প্রতিমাসে অর্জন করতে পারবেন বলে আশা করা যায়  

আর এই কাজটা যদি আপনারা চান তাহলে সে ক্ষেত্রে আপনাদের বিভিন্ন বিদেশি কোম্পানির সাথে কাজ করতে হবে   

আর তার একমাত্র কারণ হল এই কাজগুলো বাংলাদেশি কোন কোম্পানি করিয়ে নেয় না আপনারা শুধুমাত্র বিদেশি কোম্পানিতে কাজ গুলো করতে পারবেন এবং বেশ ভালো পরিমাণে একটা অর্থ উপার্জন করতে পারবেন বর্তমানে এখন অনলাইনের মাধ্যমে বেশ ভাল পরিমাণে মুনাফা অর্জন করতেছে  

7. Web Designer 

আপনি যদি একজন ওয়েব ডেভেলপার হয়ে থাকেন অর্থাৎ আপনি যদি 

ওয়েব ডেভেলপমেন্টের কাজ জানেন এবং ওয়েব ডিজাইনের কাজ গুলো জেনে থাকেন তাহলে কিন্তু 

আপনারা এই  সেক্টর থেকে বেশ ভালো করে বানিয়ে একটা 

মুনাফা অর্জন করতে পারবেন  

আর আপনারা যদি ওয়েব ডিজাইনের কাজ বা ওয়েব ডেভেলপমেন্টের কাজ গুলো না জেনে থাকেন তাহলে কিন্তু আপনার এই কাজগুলো শেখার পরে তারপরে এই কাজগুলো করে বেশ ভালো পরিমাণে একটা মুনাফা অর্জন করতে পারবেন।   

আর এই কাজগুলোর কিন্তু বর্তমানে প্রচুর পরিমাণে চাহিদা রয়েছে আর ভবিষ্যতেও এই কাজগুলোর প্রচুর পরিমানে চাহিদা থাকবে তাই আপনারা চাইলে এই কাজগুলো সেই কাজগুলো করে কিন্তু  বেশ ভালো পরিমাণে  একটা মুনাফা অর্জন করতে পারবেন  

8. Blogging 

আপনাদের যদি লেখালেখির অভ্যাস থাকে তাহলে কিন্তু আপনারা ব্লগিং শুরু করতে পারেন এখন আপনাদের মনে প্রশ্ন আসতে পারে যে আপনারা কি নিয়ে লেখালেখি করবেন বাকি নিয়ে লেখালেখি করি আপনারা সফল হতে পারবেন   দেখুন  আপনারা যে কোন বিষয় নিয়ে লেখালেখি  করেন না কেন যেকোনো বিষয়ে আপনারা সফল হতে পারবে    

আপনাদের লেখা ইউনিক হতে হবে অর্থাৎ অন্যের লেখা কপি করতে পারবে না নিজের লেখা হতে হবে সম্পূর্ণ লেখাটা নিজে লিখবেন এবং  আপনারা যে কোন বিষয় নিয়ে লিখতে পারবেন আপনাদের যে বিষয় সম্পর্কে অনেক বেশি জ্ঞান এবং বেশি জানেন সে বিষয় সম্পর্কে আপনারা আপনাদের ওয়েবসাইট এর ভিতরে লিখতে পারেন    

Read More - ডিজিটাল মার্কেটিং কি? ডিজিটাল মার্কেটিং কেন করবেন ?

আর ওয়েবসাইট বানিয়ে কিন্তু আপনারা বিভিন্ন মাধ্যমে রোজগার করতে পারবেন বর্তমানে অনেক বড় বড় ব্লগিং ওয়েবসাইট রয়েছে তাদের ওয়েবসাইট গুলো কিভাবে বানায় এবং কি নিয়ে কাজ করে এইগুলো সম্পর্কে আপনারা কয়েকদিন রিচার্জ করার পরে কিন্তু আপনারা আপনাদের জন্য একটা ওয়েবসাইট বানাতে পারেন এবং আপনাদের যে বিষয় সম্পর্কে ভালো লাগে সেই বিষয় নিয়ে আপনাদের ওয়েবসাইটে আর্টিকেল লিখতে পারেন   

যেমন  আমি আমার ওয়েবসাইটে টেকনোলজি   ব্যবসার আইডিয়া , লেখাপড়া  বিষয়ক  বিভিন্ন তথ্য এবং ট্রাভেল  ঘুরতে যাওয়ার বিভিন্ন তথ্য এবং তার সাথে বিভিন্ন বিষয় সম্পর্কে টিউটোরিয়াল প্রকাশ করে থাকি আর আপনারাও চাইলে আপনারা যে বিশ্ব সম্পর্কে ভাল জানেন বা চার  5টা বিষয় নিয়ে আপনারা কাজ করতে  পারেন।   

আশাকরি বুঝতে পেরেছেন কিভাবে আপনারা ব্লগিং শুরু করতে পারেন বা কিভাবে আপনারা লেখালেখি করে সফল হতে পারবেন    

আর এই ব্যবসা যদি আপনারা চান তাহলে কিন্তু আপনাদের কে  টাকা পয়সা খরচ করা লাগবে নাশুধুমাত্র ডোমেইন হোস্টিং কিনতে  আপনাদের কে কিছু টাকা খরচ করা লাগবে   

এছাড়া আর কোন টাকা খরচ করা লাগবে না এখানে শুধুমাত্র আপনাদের  মেধা   খরচ করতে হবে এবং সময় দিতে হবে শুধুমাত্র এটুকুই করতে হবে তাহলে আপনারা সফল হতে পারবেন এই ব্যবসা করে   আশা করি যে সম্পূর্ণ বিষয়টা বুঝতে পেরেছেন যদি কোন বিষয় সম্পর্কে প্রশ্ন থাকে তাহলে সেটা আমাদেরকে কমেন্ট করে জানাতে পারেন বা আমাদের সাথে ইমেইলের মাধ্যমে যোগাযোগ করতে পারেন  

9. App Development 

আপনারা যদি একজন অ্যাপ ডেভেলপার হয়ে থাকেন অর্থাৎ বিভিন্ন এপস বানাতে পারেন , তাহলে কিন্তু আপনারা এই কাজটি করার মাধ্যমে বেশ ভালো পরিমাণে একটা মুনাফা অর্জন করতে পারবেন  

Read More - ১০টি লাভজনক ম্যানুফ্যাকচারিং ব্যবসার আইডিয়া

আপনারা আপনাদের অ্যাপসগুলোকে প্লে স্টোরে পাবলিশ করার মাধ্যমে কিন্তু বেশ ভালোভাবে মানি একটা লাভ করতে পারবেন। এছাড়াও আপনারা চাইলে বিভিন্ন কোম্পানির জন্য অ্যাপ্স বানিয়ে দিতে  পারেন 

আপনারা চাইলে বিভিন্ন ওয়েবসাইট বিভিন্ন স্কুল কলেজ এবং হাসপাতাল সুপার শপ  বিভিন্ন ছোট ছোট যেসকল দোকান রয়েছে সে সকল দোকানগুলোর প্রোডাক্ট গুলোকে সাজিয়ে রাখার জন্য অনেক সময় অ্যাপস বানানোর দরকার হয় তাকে সেই  অ্যাপসগুলোকে বানিয়ে দিয়ে  কিন্তু আপনার বেশ ভালো পরিমাণে একটা অর্থ উপার্জন করতে পারবেন খুব সহজে   

10. Social Media Influencer

আপনারা চাইলে কিন্তু একজন Social Media Influencer হিসেবে কাজ করতে পারেন আর বর্তমান সময়ে কিন্তু এখন অনেকেই এই Social Media Influencer আর  হিসেবে কাজ করতেছে আর তাই আপনারা যদি সোশ্যাল মিডিয়ায় ইনফ্লুয়েন্সার হিসেবে কাজ করতে চান তাহলে কিন্তু করতে পারেন এই কাজ করে কিন্তু আপনার বেশ ভালো পরিমাণে একটা  মুনাফা অর্জন করতে পারবেন  

Admin

আমি একজন স্টুডেন্ট , বর্তমানে একাউন্টিং বিষয় নিয়ে অনার্স করতেছি, আর তার সাথে সাথে লেখালেখি করি। ফ্রী সময় যখন হয় তখন আমি যে বিষয়গুলো জানি সেই বিষয়গুলো সম্পর্কে আপনাদেরকে একটু আইডিয়া দেওয়ার চেষ্টা করি এই ওয়েবসাইটের মাধ্যমে।

Post a Comment

Previous Post Next Post